Apeejay Bangla Sahitya Utsab 2k17

“এত ভঙ্গ বঙ্গদেশ , তবু রঙ্গে ভরা” ঈশ্বর গুপ্ত।

দুর্যোগের মেঘ বারবার ঘনিয়েছে বাঙালির ভাগ্যাকাশে, কখনও করেছে তার অস্তিত্বকে বিপন্ন, তবু ভাটা পড়েনি তার অফুরান আনন্দস্রোতে, নানা রঙে সে তার উৎসবমুখর দিনের আনন্দঘন মুহূর্তগুলোক ছড়িয়ে দিয়েছে জীবনের সুবিশাল আঙিনায়, তাই এই উৎসবপ্রিয় জাতির ঐতিহ্যবহনকারী সংস্কৃতির সাক্ষী থাকছে আরো একবার এপিজে সাহিত্য উৎসব- সকলের জন্যই বিরাজমান এই আনন্দউৎসবের প্লাবন। অক্সফোর্ড বুকস্টোর ও পত্রভারতির যৌথ সহযোগিতায় আয়োজিত হবে তৃতীয় বর্ষে পদার্পনকারি এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসব।

received_1730040487027958

‌আগামী ৩-৫ই নভেম্বর এই বাংলা সাহিত্য উৎসব অনুষ্ঠিত হবে পার্ক স্ট্রিটের এপিজে হাউসের লনে। উপস্থিত থাকবেন মাননীয় শঙ্খ ঘোষ, শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, প্রফুল্ল রায়, সমরেশ মজুমদারের মতো বিখ্যাত সাহিত্যিক প্রজন্ম। থাকবেন বাংলাদেশ থেকে আমন্ত্রিত সাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন। এছাড়াও এই উৎসবের সাক্ষী থাকবেন সিনেমা ও সংগীত জগতের আরো কয়েক শিল্পী বর্গ।

FB_IMG_1509989133670.jpg

সাহিত্য যাদের প্রাণ তাদের জন্যেই আয়োজিত এই বাংলা সাহিত্য উৎসব, নানাধী অনুষ্ঠান রয়েছে তাদেরই জন্যে, রয়েছে বাংলা সাহিত্যে কুইজ- পরিচালনায় সৌরভরঞ্জন দত্ত, আরো রয়েছে বাঙালির জীবনযাত্রা নিয়ে আলোচনা- ভোজনরসিক ও ভ্রমনরসিক বাঙালির সদাহস্যময় জীবন নিয়ে কথোপকথন। এছাড়াও রয়েছে নাটকীয় সাহিত্য, সঞ্চালনায় প্রচেত গুপ্ত ও বক্তাবর্গের আসনে ব্রাত্য বসু, বিভাস চক্রবর্তী, অরিন্দম গাঙ্গুলী ও অর্পিতা ঘোষ, এনাদের ন্যায় শিল্পীবর্গ।

FB_IMG_1509989135484

আর বইপাগল মানুষদের জন্য রয়েছে বহুপ্রকার আয়োজন- বইপাগলা, কথা কম কাজ বেশি, শব্দবাজি ইত্যাদি প্রতিযোগিতা রয়েছে শিরোনামের আসনে। বইপাগলা হলো ছবির অনুষ্ঠান, বই নিয়ে সেরা ছবি জায়গা পাবে এই প্রতিযোগিতায়, আর নিজের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে লেখকের প্রতিভা? তাহলে বই লেখনী প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে ২০টি শব্দে গল্প বা ৬ লাইনের ছোট্ট কবিতা লিখে পাঠাতে হবে ২৭ তারিখের মধ্যে। ‘কথা কম কাজ বেশি’ প্রতিযোগিতায় স্থান পাবে এই সৃষ্টি। ‘শব্দবাজি’ বিভাগে নাম দেওয়া যাবে ৩১ তারিখের মধ্যে। শব্দপ্রিয় মানুষের জন্যে এই প্রতিযোগিতার আবির্ভাব।

FB_IMG_1509995467155

এছাড়া নিজের শহরের খুঁটিনাটি চিনিয়ে দেওয়ার জন্যে আয়োজিত হয়েছিল একটি হেরিটেজ ওয়াকের। উত্তর কলকাতার বুকে শিক্ষক, ব্লগার, গবেষক, এছাড়া বিভিন্ন প্রান্তরের কর্মরতা মানুষের ভিড়ে জমে উঠেছিল ‘কলকাতার দর্পন’ ওয়াকটি। অবন্ধকারের জগতে নিজের শহরকে আবারও চিনিয়ে দিতে এই আয়োজন।

FB_IMG_1509885724607

এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসবের সহযোগী ২৪ ঘন্টা, এছাড়া বেতার সহযোগী 94.3 Radio One, অধিবেশন সহযোগী Parag ও কবিতা club, ফটোগ্রাফি ও ব্লগিং সহযোগী Photo_Scene_Thesis, সোশ্যাল মিডিয়া সহযোগী Calcutta Cacophony সংস্থাগুলির সহযোগিতায় তৃতীয় বর্ষে পদারপনকারী এই উৎসব আবারও এক নতূন ভূমিকায় অভির্ভূত হতে চলেছে আগামী ৩-৫ই নভেম্বর। বাঙালির জীবনে বাংলা সাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাকে আবারও উজ্জীবিত করার প্রচেষ্টায় রত এই বাংলা সাহিত্য উৎসব।

FB_IMG_1509988450051

বাংলা ভাষায় য়ে আজ জমে উঠেছিল বাংলা ভাষার গল্প কবিতা উপন্যাস সিনেমা নাটক ভাষা সব মিলিয়ে এক অভূতপূর্ব অধিবেশন এই এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসব। তৃতীয় বছরে পদাপণকারী এই উৎসব বাঙালির অনেক কাছের,অনেক প্রিয়।তাই প্রথম বছর থেকেই এই উৎসব শুধুই জনপ্রিয়তা পেয়েছে তাই ,বিশ্বের ইতিহাসে এর প্রভাব ছড়িয়েছে অনেকখানি।
এই বছরের সাহিত্য উৎসবের। দিতীয় দিনে সকাল অনুষ্ঠানের প্রথমেই বাংলা ভাষায় কুইজ সকলের নজর কেড়েছিল।বাংলা সাহিত্য ভিত্তিক প্রশ্নের তালিকা ভাবিয়ে তুলেছিল প্রতিযোগিদের। এরপর ভ্রমণরসিক বাঙালির প্রসঙ্গে
ভ্রমণপিপাসু ভাবনার কথা তুলে ধরেছেন নন্দিতা বাগচী, শঙ্কর বোস ও রঙ্গন দত্ত। বাঙালি শুধুমাত্র ভ্রমণরসিক নয়, ভ্রমণপাগল, আর রহস্যপিপাসু।তাই বারবার তারা ফিরে গিয়েছে হিমালয়ের কোলে, দেশ বিদেশের বৈচিত্র্যময় পরিবেশে,বাঙালির ভ্রমণপ্রিয় মনোভাব আজকের নয়, সেই আবুল ফজলের লেখায় পাওয়া গেছে এর কথা।

FB_IMG_1509989117890
এরই পরিপ্রেক্ষিতে এসেছে ভোজনরসিক বাঙালির প্রসঙ্গ, দেবাশীষ মুখোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় শিলাদিত্য চৌধুরী, রাজীব ঘোষ ও বিকাশ মুখোপাধ্যায়ের বক্তব্যে ছাপ পড়েছে ভোজনরসিক মনোভাবের। বাঙালি মাত্রই ভোজনপ্রিয়,একটা কথা আছে না, খালি পেটে ধর্ম হয় না। তা সত্যিই বটে। ৪০ এর দশক থেকে আজও তার ভোজনরসিকতা ভোলেনি, তার খাদ্যপ্রীতি, আজও তাকে করে তোলে অনন্য।
এরপর গানে গল্পে পঞ্চকবির গান পরিবেশনে পরমা দাশগুপ্ত ছিলেন অতুলনীয়, কথনে শ্যামলী আচায্যের ভূমিকাও উল্লেখযোগ্য।

FB_IMG_1509892970437

এরপর সর্বশ্রেষ্ঠ আকষর্ণীয় মুহুর্ত ছিল অর্ধশতক পেরিয়ে ।ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, সমরেশ মজুমদারের উপস্থিতিতে বাঙালি সাহিত্য ভাবনার কথা তুলে ধরা হয়েছে।অর্ধশতক পেরিয়ে এই দুই লেখক আমাদের তিন প্রজন্মকে নিজেদের লেখনীর মাধ্যমে অনুপ্রাণিত করেছেন।এনাদের সাহিত্য সৃষ্টি আমাদের বাঙালির কাছে অনেক গর্বের।তাদের অসাধারণ সাহিত্য কীর্তি ছোট বড়ো নির্বিশেষে সকলের প্রিয়।এই আলোচনা বাঙালির সাহিত্য উৎসবের সেরা পর্যায়।
এরপর প্রসঙ্গে কমবয়সীরা বাঙলা পড়া ছেড়ে দিয়েছে,পিউ রয়ের সঞ্চালনায় সুবোধ সরকার, চুমকি চট্টোপাধ্যায়, রূপা মজুমদার ও শুভঙ্কর দে এর বক্তব্যে প্রাধান্য পেয়েছে কমবয়সীদের বাঙলাচরচার কথা।এখনকার ছোট্ট ছেলেমেয়েরা অন্য ভাষার প্রাধান্য দিতে গিয়ে নিজের মাতৃভাষা ভুলতে বসেছে।এটা শুধুমাত্র তাদের ভুল নয়,সমাজের গাফিলতি।

FB_IMG_1509893032565
এরপরএখন কমিকসই সাহিত্য !
বক্তব্য রেখেছেন সুবোধ বনদোপাধ‍্যায়, অমৃতা চট্টোপাধ্যায়, ঋদ্ধি সেন,জুরান নাথ।
কমিক এবং সাহিত্য দুই বিষয় একে অপরের পরিপূরক । এখনকার যূগ কমিকস দেখে সাহিত্য শিখছে ।তাই সাহিত্য বাচাতে কমিকস অনেকটাই দরকার।
এরপর আসে নাটকীয় সাহিত্যের প্রসঙ্গ।প্রচেত গুপ্তের সঞ্চালনায় নাটকের প্রসঙ্গে মেতে উঠেছেন ব্রাত্য বসু,অরিন্দম গাঙ্গুলী,বিভাস চক্রবর্তী।
সাহিত্য বলতে নাটকীয়সাহিত‍্যের কথা আসবেই, তবে সব নাটক সাহিত্য নয়।তবে নাটক সমৃদ্ধ করতে সাহিত্যের ভূমিকা অনেক, নাটক অনেক ভাবে উন্নত করে বা‌ঙালি সাহিত্যকে।
সব মিলিয়ে বাংলা সাহিত্য সমৃদ্ধি লাভ করেছিল আজ এপিজে প্রাঙ্গনে, গুণময় ব্যক্তিত্ত্বদের উপস্থিতিতে বাঙালি সম্প্রদায়ের স্থিতি আরও মর্যাদাপূর্ণ হয়ে উঠেছিল আজ।

এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসব, বাঙালির সাহিত্য চেতনাকে উন্নতির শিখরে পৌঁছে নিয়ে যেতে যার অবদান অনেকখানি।

FB_IMG_1509989155257
আজ এই উৎসবের তৃতীয় দিনে সকাল থেকেই শুভারম্ভ হয়েছিল আরজে রয়ের সঞ্চালনায় শব্দবাজি প্রতিযোগিতা।
শব্দবাজি প্রতিযোগিতা মাত্রই শব্দ নিয়ে খেলা, বাংলা শব্দকে কেন্দ্র করে আভিধানিক ভিত্তিতে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন। নানা পর্ব সম্মেলনে প্রতিযোগিদের নিয়ে এক অভিনব খেলা এটি।এরপর প্রধান অথিতি শ্রীজাত এর সঞ্চালনায় কথা কম কাজ বেশি প্রতিযোগিতার ফলাফল ঘোষণা ও পুরস্কার পর্বের সূচনা হয়েছিল। অনুগল্পের সেরা তিন প্রতিযোগী দ্বীপান্বিতা মুখোপাধ্যায়, শুভ্রা ভট্টাচার্য ও মহুয়া সেন এবং অনুকবিতার তিন শ্রেষ্ঠ প্রতিযোগী ছিলেন নন্দিনী সেনগুপ্ত, স্বাগত মিত্র ও মধুপর্ণা দে।

এই অনুষ্ঠানের পরবর্তী ছিল তক্ষুণি তাৎক্ষণিক। কবিতা ক্লাবের পরিবেশনায় বিচারকের ভূমিকায় ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায়ের অবদান অতুলনীয়। সত্তর জন প্রতিযোগীদের মধ্যে সেরা তিনজনকে বেছে নেয়া নিসন্দেহে কঠিন, তবুও সেরা তো আর সবাই হতে পারে না, রোহিত দে, সুব্রত মাইতি ও সুপম এই তিন তরুণ আজকের
তক্ষুণি তাৎক্ষণিক এর সর্বশ্রেষ্ঠ। এরপর ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় আরজে রয়,আরজে সায়ন ও আরজে পৃথা এই তিন ব‍্যক্তিত্যের বক্তব্যে প্রকাশ পেয়েছে বাংলা ভাষার মর্যাদা। আরজেরা কি বাংলা ভাষাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে এই বিষয়টির অভূতপূর্ব ব্যখ্যা পেয়েছি এদের কথোপকথনে।

এর পরবর্তী বই পাগলা প্রতিযোগিতার ফলাফল প্রকাশে সর্বশ্রেষ্ঠ প্রতিযোগীর আসন পেয়েছেন জয়দীপ ভট্টাচার্য্য, যার বই প্রীতি মনোভাবের আয়না ধরা পড়েছে আলোকচিত্রের আঙিনায়।

FB_IMG_1509914500037

ইতিহাস আজও টানে – অনীশ দেবের সঞ্চালনায় বাণী বসু,ইমদাদুল হক মিলন ও হিমাদ্রিকিশোর দাশগুপ্ত বক্তব্য রেখেছেন বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস নিয়ে , ইতিহাস দেশের সবচেয়ে গৌরবময় অধ‍্যায়। এই ইতিহাস কে কেন্দ্র করে বাঙালির সাহিত্য কম উন্নতি পায়নি।এরপর ছিল এক অভিনব আলোচনা, যার বিষয়ে ফেসবুকে হিরো, বাস্তবে জিরো।
ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় নচিকেতা, প্রচেত গুপ্ত , শ্রীজাত ও তন্ময় মুখার্জির মত অতি পরিচিত ব‍্যক্তিত্যের বক্তব্যে ধরা পড়েছে ফেসবুকের ভালো খারাপ দিকগুলো।
এরপর পিউ রয়ের সঞ্চালনায় নবনীতা দেবসেন, বীথি চট্টোপাধ্যায়, অনীতা অগ্নিহোত্রী ও যশোধরা রায় চৌধুরীর কথায় প্রকাশ পেয়েছে দাঁড়িপাল্লায় খুন্তি কলম। এটি একান্তই মহিলাদের প্রতিনিয়ত জীবন ভিত্তিক।

FB_IMG_1509893061643

এরপর অনুষ্ঠানের শেষলগ্নে বিষয়ভিত্তিক আলোচনায় মেতে উঠেছিলেন অরিন্দম শীল, আবীর চট্টোপাধ্যায় ও পম্পি ঘোষ মুখার্জি।
সাহিত্যের গোয়েন্দারা সিনেমায় পাল্টে গেল, এই নিয়ে বিষদ আলোচনায় এই বিশেষ ব‍্যক্তিরা।
এইসব মিলিয়ে এক নতুন ধরনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা পর্ব দিয়ে এবছরের মতো ইতি পেল এই উৎসব। আসছে বছর আবার হবে, এই প্রতিশ্রুতিতে আগ্ৰহী আমরা।

 

 

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s